বাংলাদেশ , মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০

শাপলাপুর ইউপি নির্বাচন : চেয়ারম্যান পদে বিজয় নিয়ে নানা গুঞ্জন!

প্রকাশ: ২০১৯-১২-১২ ১৫:৩২:৫৪ || আপডেট: ২০১৯-১২-১৩ ১৩:৪৪:৪১

অনলাইন ডেস্ক : কোন ধরনের অঘটন ছাড়াই সম্পূর্ণ হয়েছে মহেশখালী উপজেলার বহুল আলোচিত শাপলাপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অবতীর্ণ হয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন দিদারুল ইসলাম হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ করা হয়। কেন্দ্র ভিত্তিক পাওয়া ফলাফলে এই তথ্য জানা গেছে। ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী চেয়ারম্যান নির্বাচিত দিদারুল ইসলাম পেয়েছেন ৪৩৯৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সালাহ উদ্দীন কমল পেয়েছেন ৪১৩৬ ভোট। তাদের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় থাকা তৃতীয় স্থান হওয়া আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবদুল খালেক চৌধুরী পেয়েছেন ৩৫০৯ ভোট। বিচ্ছিন্নভাবে অনুষ্ঠিত একমাত্র ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটারদের ব্যাপক সাড়া পড়ে। এতে পুরুষ শাপলাপুর জুড়ে সৃষ্টি হয় এক উৎসবমুখর পরিবেশ। চেয়ারম্যান অথবা মেম্বারদের সমর্থকদের মধ্যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। তবে দুটি কেন্দ্রে জাল ভোট দেয়ার চেষ্টা কালে দুজনকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহণের কঠোর নিরাপত্তা জোরদার ছিল সবকটি ওয়ার্ডে। নিরাপত্তা নিশ্চিত করনি নিয়ে যেতে ছিলেন বিপুলসংখ্যক পুলিশ র্যাব বিজিবি ও আর্মড পুলিশের সদস্য। তাদের পরিচালনায় ছিলেন একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট প্রতি কেন্দ্রে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং একজন অতিরিক্ত পুলিশ। তবে ভোটের আগের দিনের মতো মোট চলমান অবস্থা সাংবাদিকদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী আব্দুল খালেক চৌধুরী। তিনি ভোট কেন্দ্রে পর্যবেক্ষকের দায়িত্বে থাকা সাংবাদিকদের গালিগালাজ সহ অশালীন আসন করেছে। এতে কর্মরত সাংবাদিকদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। সাংবাদিকদের উপর হামলা এবং অসৌজন্যমূলক আচরণের প্রতিবাদে শাপলাপুরে এক বিক্ষোভ মানববন্ধন করেন কর্মরত সাংবাদিকরা।
নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা জুলকারনাইন জানিয়েছেন, সম্পূর্ণ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা ছিল নির্বাচন কমিশনের। সে লক্ষ্যে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা জোরদার করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়। সে লক্ষ্য বাস্তবায়নে পুরোপুরি সফল হয়েছে নির্বাচন কমিশন। একটিও অঘটন ছাড়া নির্বাচন সম্পন্ন করা সম্ভব হয়েছে।

ট্যাগ :