বাংলাদেশ , মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০

প্রাণঘাতী করোনা যুদ্ধে নারী ইউএনও

প্রকাশ: ২০২০-০৫-২২ ১৫:০৯:৪৪ || আপডেট: ২০২০-০৫-২২ ১৫:০৯:৪৪

অনলাইন ডেস্ক : পাঁচ বছরের শিশু ছেলে ও পরিবারের সান্নিধ্যকে দূরে রেখে প্রাণঘাতী করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেমেছেন বরিশালের উজিরপুরের ইউএনও প্রণতি বিশ্বাস। লকডাউনের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় দরিদ্র মানুষের মাঝে কোনো অভিযোগ ছাড়াই প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ পৌঁছে দিয়ে এরইমধ্যে উপজেলা প্রশাসনের এ কর্মকর্তা ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়েছেন।
যেখানেই করোনা রোগীর সংবাদ পেতেন সেখানেই ছুটে গিয়ে লকডাউনসহ সচেতন করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতেন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মৃত ব্যক্তিদের দাফন ও সৎকারের জন্য তৈরি করেছেন একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। ওই সংগঠনের মাধ্যমে এরইমধ্যে তিনজন আক্রান্ত ও সন্দেহজনক ব্যক্তিদের দাফন কার্য সম্পাদন করেন। উপজেলায় প্রধানমন্ত্রীর মাধ্যমে ১৮ হাজার পরিবারের মাঝে ত্রাণ পৌঁছে দেন।
বর্তমানে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে উপজেলায় আরো ১০ হাজার পরিবারকে ত্রাণ দেয়ার কার্যক্রম শুরু করেছেন। এছাড়া উপজেলায় আশা এনজিও ২০০ পরিবারকে, পদক্ষেপ এনজিও ১০০ পরিবারকে ত্রাণ এবং ওয়াল্ড ভিশন এনজিও ৩৭৯টি পরিবারকে ৩ হাজার টাকা প্রদান করে। এছাড়া ব্র্যাক ১ হাজার ৫০০ টাকা করে ত্রাণ ও জাগরণী ফাউন্ডেশন ৫০০ টাকা করে ১০০ পরিবারের মাঝে বিতরণ করে।
এ ব্যাপারে ইউএনও প্রণতি বিশ্বাস বলেন, মানুষের কল্যাণে কাজ করাটা আনন্দের। তবে জীবনের ঝুঁকি তো আছেই। এই সময় ইচ্ছা করলেই সন্তান ও পরিবারের সান্নিধ্য আশা করা যায় না।
তিনি আরো বলেন এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র, রাজনৈতিক নেতা, ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বর, চৌকিদার, দফাদার, আনসার ভিডিপি সদস্যসহ সবার সহযোগিতায় এই যুদ্ধে এগিয়ে যাচ্ছি। পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে পৌরসভাসহ প্রতিটি ইউপিতে ১০ টন চাল ও ৩১ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। প্রতিটি ইউপিতে ১ হাজার পরিবারকে এ চাল বিতরণ করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল, বিভিন্ন এনজিওসহ প্রায় ৩০ হাজার পরিবারে এ খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন ব্যক্তি ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন পৃথক পৃথক সহযোগিতা প্রদান করেছে।
তিনি আরো বলেন, সুপার সাইক্লোন আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ট্যাগ :