বাংলাদেশ , বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০

খুরুস্কুলে ইয়াবার জুয়ার নেতৃত্বে দুই সহোদর

প্রকাশ: ২০২০-১০-১৭ ১১:৩৯:৪১ || আপডেট: ২০২০-১০-১৭ ১১:৩৯:৪১

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সদ্য কারামুক্ত কুলিয়া পাড়ার আবু সুফিয়ান প্রঃ পুইত্তা,ফের পুরানো পেশায়,নিয়ন্ত্রন করছে খুরুস্কুলের ইয়াবা ব্যবসা। মাত্র কিছুদিন আগে ইয়াবার চালান দিতে গিয়ে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের হাতে বিপুল পরিমান ইয়াবা নিয়ে গ্রেফতার হলেও,মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে জামিনে বের হওয়ার পর আবারো পুরাতন পেশায় নিজেকে নিয়োজিত করেছে মৃত আবু তাহারের পুত্র,আবু সুফিয়ান প্রঃ পুইত্তা এবং তার প্রধান সহযোগী আপন সহোদর মনজুর। খুজ নিয়ে জানা গেছে,দৃশ্যমান কোন পেশা নেই,কিন্তু অল্প সময়ের ব্যবধানে এত অর্থবিত্তের মালিক কেমনে হল জনমনের সন্দেহ সৃষ্টি করেছে,তার কিছু দিনের মধ্যে বিভিন্নভাবে সংবাদ পাওয়া গেল,আবু সুফিয়ান প্রঃ পুইত্তা বিপুল পরিমান ইয়াবা নিয়ে পালপাড়া নামক স্থানে ডিবি পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছিল,আবু সুফিয়ান গ্রেফতার হলেও তার ব্যবসা চালিয়ে গেছেন আবু সুফিয়ানের আপন সহোদর মনজুর,কুলিয়া পাড়ার আব্দুল আজিজ,চৌফলদন্ডির কামাল,তাদের ব্যবসার অন্যতম সহযোগী এবং পার্টনার। মাদক বিক্রির টাকা সংগ্রহ করেন মনজুর। আবু সুফিয়ান প্রঃ পুইত্তার ভগ্নিপতি আইনজীবি হওয়ার কারনে মোটা অংকের টাকার মাধ্যমে দ্রুত জামিন পেয়ে গেছে বলে মনে করেন এলাকাবাসী। মনজুর এবং আবু সুফিয়ানের নিয়ন্ত্রনে চলে খুরুস্কুল কুলিয়াপাড়ার আব্দুল আজিজের বাড়িতে রমরমা খুচরা এবং পাইকারি ইয়াবা ব্যবসা ও সেবন।চৌফলদন্ডিতে কামালের নিয়ন্ত্রনে ইয়াবার রমরমা পাইকারি ও খুচরা ব্যাবসা। মনজুর, আবু সুফিয়ান প্রঃপুইত্তা এবং কামালের ফোনে তাদের বক্তব্য নেওয়ার জন্য বেশ কয়েকবার ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাদের ফোন বন্ধ পাওয়া যাই।
এ ব্যাপারে কক্সবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,আবু সুফিয়ান প্রঃ পুইত্তা,তার আপন সহোদর মনজুর,আব্দুল আজিজ এবং চৌফলদন্ডির কামালকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ দ্রুত অভিযান পরিচালনা করবে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একালাবাসীর দাবী এরা এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী,তাদের ব্যবসায় এলাকার কেউ বাধা সৃষ্টি করলে,মারধরসহ প্রান নাশের হুমকি প্রদান করে। এসব মাদক ব্যবসায়ীদের স্বমূলে উৎপাটন না করলে যুবসমাজকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করা যাবেনা। এলাকাবাসী দ্রুত প্রশাসনের অভিযান খুবই জরুরী বলে মনে করেন।

ট্যাগ :