বাংলাদেশ , বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১

আমি সহজ সরল মানুষ শাশুড়ির মনে কি ছিল বুঝি নাই: তামিমার স্বামী

প্রকাশ: ২০২১-০২-২১ ০৬:৩৭:৩৫ || আপডেট: ২০২১-০২-২১ ০৬:৩৭:৩৫

অনলাইন ডেস্কঃ ভালোবাসা দিবসে কেবিন ক্রু তামিমা তাম্মিকে বিয়ে করেন ক্রিকেটার নাসির হোসেন। বিয়ের পর অভিযোগ উঠে প্রথম স্বামীকে তালাক না দিয়েই নাসিরের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে জড়িয়েছেন তামিমা। এ ঘটনায় রাকিব তামিমার মায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেছেন, ‘তামিমা যদি ফ্রেন্ড বলে বয়ফ্রেন্ডকে বাসায় নিয়ে আসে তাতে ওর মা কিছু করবে না।‘
তিনি বলেন, ‘তামিমাকে আমি পড়াশোনা করিয়েছি। এসএসসি পাস করার পর আমার এখানে এসেছে। এসএসসিতে এ প্লাস পাওয়ায় আমার বাবার অমতে তাকে পড়াশোনা করাই। ঢাকায় একটি শো রুমে ম্যানেজার পোস্টে চাকরি নেয়ার এক সপ্তাহ পর তামিমাকেও নিয়ে আসি। টাঙ্গাইল কুমুদিনী কলেজে ভর্তি করিয়ে দেই। তখন শাশুড়ি আমাকে খুঁজে বেড়ায়, সে আমাকে পেলে মারবে। তো হঠাৎ একদিন শাশুড়ি মেয়ের জন্য কান্না করে। আমি তো সহজ সরল মানুষ, তার মনে যে কান্নার আড়ালে অন্য কিছু আছে বুঝব কী করে।’
রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তামিমার প্রথম স্বামী রাকিবের একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। প্রকাশিত ভিডিওতে রাকিব বলছেন, ‘কোনও ফ্রেন্ড বলে যদি বয়ফ্রেন্ডকে বাসায় নিয়ে আসে তাতে ওর মা কিছু করবে না। এখন তো শিশু নির্যাতন হচ্ছে, বা ওদের সঙ্গে কোনও অতিথি আসলে সে হয়তো আমার মেয়ের সঙ্গে কিছু করতেই পারে- বাবা হিসেবে এটা আমি চিন্তা করতেই পারি। এ কারণে মেয়ের নিরাপত্তার জন্য আমার আম্মার সঙ্গে রেখেছি।’
এছাড়াও রাকিব বলেন, ‘আমরা ধার্মিক মুসলমান। সে কিভাবে এরকম কাজ করে? খুবই লজ্জার এটা। বন্ধুরা ফোন করে বলতেছে ভাই আপনি ভাবীকে ডিভোর্স দিলেন কবে? আমি বলি, ভাই আমি তো ডিভোর্স দেইনি, ঘুম থেকে উঠে দেখি বিয়ে শেষ! খুব ধুমধাম। খুব কষ্ট লাগলো আমার। মেয়েটা আমাকে নাসির ফোন করার আগের দিন ফোন দিয়ে বলতেছে, বাবা আম্মু কি করতেছে তুমি দেখছো? মেয়ের পাশে আমার ভাই ছিল। ও ফেসবুকিং করার সময় নিউজফিডে তামিমার বিয়ের ছবি, নিউজ সামনে আসায় মেয়ে তাতে দেখে তার মায়ের (তামিমা) কপালে চুমা, কত কী। মেয়ে কান্না করেছে।’
এর আগে শনিবার বিকেলে তামিমার প্রথম স্বামী রাকিব গণমাধ্যমে জানান, আইনগতভাবে বিবাহবিচ্ছেদ ছাড়াই তামিমা বিয়ে করেছেন নাসিরকে। তামিমার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে কোনও সাড়া না পেয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন প্রথম স্বামী।

ট্যাগ :