বাংলাদেশ , বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১

খুরুস্কুলে সংখ্যালঘুদের জায়গা দখলের পায়ঁতারা‍ঃ প্রাণনাশের হুমকি

প্রকাশ: ২০২১-০২-২৪ ১৭:৩৫:১০ || আপডেট: ২০২১-০২-২৪ ১৭:৩৫:১০

বার্তা পরিবেশকঃ কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুস্কুলে সংখ্যালঘু পরিবারের জায়গা জবর দখলের পায়ঁতারা চালিয়ে আসছে প্রভাবশালী ভূমিগ্রাসীরা। একারণে প্রাণনাশের হুমকি ধমকিসহ মারধরের ঘটনাও ঘটিয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।
স্থানীয়রা জানান, খুরুস্কুল পালপাড়া বাজারস্থ আনন্দ সেলুনের সামনে পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া ও আপন চাচা প্রলুপ পালের নিকট থেকে ক্রয়কৃত ৮ শতক জমি ভোগ করে আসছিল অপুপাল গং। ঐ এলাকার জায়গা জমির দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় উক্ত জায়গার উপর নজর পড়েছে ভূমিগ্রাসী মোঃ নুর সিন্ডিকেটের। তারই সূত্র ধরে সম্প্রতি সময় মোঃ নুর ও তার দুই সন্তান আব্দুল্লাহ ও বিবুলা প্রকাশ (বুলবুলি)’র নেতৃত্বে উক্ত জায়গা জবর দখলের পায়ঁতারা চালিয়ে আসছে। এব্যাপারে সংশ্লিষ্ঠ প্রশাসনসহ বিভিন্ন দপ্তরে ভূমি গ্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে ভূক্তভোগী অপুপাল গং। কিন্তু দুঃখের বিষয় এ পর্যন্ত মোঃ নুরের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি সংশ্লিষ্ঠরা। যার ফলে ক্রমশ বেপরোয়া হয়ে বীরদর্পে সংখ্যালঘু পরিবারকে মারধরসহ প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে উক্ত ভূমিগ্রাসী গ্রুফ। এ নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিনাতিপাত করছেন সংখ্যালঘু পরিবার।
ভূক্তভোগী অপুপাল জানান, দীর্ঘদিন পর্যন্ত পৈত্রিক সম্পত্তিসহ চাচা প্রলুপ পালের কাছ থেকে ক্রয়কৃত মোট ৮ শতক জায়গা ভোগ-দখল করে আসছিল। তবে উক্ত জায়গা মোঃ নুরের নেতৃত্বে একটি ভূমিগ্রাসী সিন্ডিকেটের নজর পড়ে। একারণে প্রতিদিন তার পুত্র আব্দুল্লাহর নেতৃত্বে চলছে অস্ত্র মহড়া। যার ফলে, ঘরবাড়ি ভাংচুরসহ প্রাণনাশের চরম আশংকা রয়েছে। সংশ্লিষ্ঠ প্রশাসন বারবার অভিযোগ করে কোনো সুরাহা পায়নি। এখন আমরা সংখ্যালঘু হওয়াতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছি। ফলে পরিবার পরিজন নিয়ে চরম আতঙ্কে দিনাতিপাত যাপন করছি।তাই উক্ত ভূমি গ্রাসীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিলে যেকোনো মুহুর্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষসহ প্রাণনাশের আশংকা রয়েছে।
এব্যাপারে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মুনিরুল গিয়াস জানান, এ বিষয়ে আমি অবগত নই। তবে ভূক্তভোগীদের কাছ থেকে লখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ট্যাগ :