বাংলাদেশ , মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১

টেকনাফে আইনশৃংঙ্খলা বাহিনীর নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ

প্রকাশ: ২০২১-০৩-৩১ ০৯:২৩:৪৭ || আপডেট: ২০২১-০৩-৩১ ০৯:২৪:০৮

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

মাদকের রাজধানী খ্যাত টেকনাফের হ্নীলা  হোয়াইক্যং এলাকায় আইনশৃংঙ্খলা বাহিনীর নাম ভাঙিয়ে বিভিন্নস্থানে চাঁদাবাজির  অভিযোগ উঠেছে কামরুল হাসান (প্রকাশ আবু) এর বিরুদ্ধে।

স্থানীয়দের দাবি,চাঁদা না পেলে বিভিন্ন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের নানা কৌশলে র‌্যাব দিয়ে হয়রানি করেন কামরুল। মাসিক উৎকোচ সুবিধায়  মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে তার গভীর সখ্যতা রয়েছে বলে অভিযোগ অভিযোগ দীর্ঘদিনের।

ইতিমধ্যে কামরুলের বিরুদ্ধে হত্যা,মাদক অস্ত্রসহ ৪টি মামলা রয়েছে।এরপরও কিছুতেই তার অপকর্ম কমেনি।

স্থানীয়রা জানান,সম্প্রতি মহেশখালিয়া পাড়ার খোকন নামের এক ব্যাক্তিকে র‌্যাব মাদকসহ গ্রেফতার করে।কামরুল খোকনকে র‌্যাবের হাত থেকে ছাড়িয়ে আনার নাম করে খোকনের মা এবং স্ত্রীর কাছ থেকে ৭ভরি র্স্বণ আত্নসাৎ করে।

খোকনকে ছাড়িয়ে আনতে না পারার কারণ জানতে চাইলে কামরুল তার কোমর থেকে অবৈধ পিস্তল বের করে হুমকি দেয় বলে দাবি করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার।

একইভাবে পূর্ব  মহেশখালিয়া পাড়ার দোকানদার শাহ আলমের দোকানে বাকি না দেওয়ায় দোকানদার শাহ আলমকে ছুরি মেরে হত্যার চেষ্টা চালায় কামরুল। এ ঘটনায়
শাহ আলম বাদি হয়ে মম একটি হত্যা চেষ্টা মামলা দায়ের করেছেন। মামলার নাম্বার জিআর ১০৪৬/২০১৯।

কিছুদিন পূর্বে পশ্চিম মহেশখালিয়া পাড়ার সরোয়ার নামের এক ব্যক্তির মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দিলে তাতে রাজী না হওয়ায় তাকেও হাতে ছুরিকাঘাত করার অভিযোগ রয়েছে।

এ ছাড়াও কামরুল হাসানের বিরুদ্ধে  অস্ত্র,মাদক,হত্যাসহ আরোও তিনটি  মামলা রয়েছে। যথাক্রমে মামলা নাম্বার জিআর ৫৬৯/২০ জিআর ৫৭০/২০,জিআর ৫৭১/২০।

খোঁজ নিয়ে জানাগেছে,মাঝে মধ্যে র‌্যাবের কয়েকজন সদস্যের সঙ্গে তাকে দেখা যায়।র‌্যাবের তথ্যদাতা হয়ে তাদের সঙ্গে অবাধ ঘুরাফেরার ফলে অনেকেই তাকে র্সোস হিসাবে চেনে বলে জানান স্থানীয় মানুষ।  এ সুযোগে ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজি করে যাচ্ছে কামরুল।

জানতে চাইলে স্থানীয় মেম্বার মোঃ জাহেদ বলেন কামরুল র‍্যাবের সোর্স পরিচয় দিয়ে  খোকনের পরিবারের থেকে ৭ ভরি স্বর্ণ নেওয়া নিয়েগেছে।এ ছাড়াও   র‍্যাবের সোর্স পরিচয়ে চাঁদাবাজির কথা মানুষের কাছ থেকে শুনতে পায়।তবে কেউ আমাকে সুনির্দিষ্টভাবে অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে জানতে কামরুল হাসান আবুর মোবাইলে  একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও সংযোগ বিচ্ছিন্ন পাওয়া যায়।

অভিযোগের বিষয়ে অবগত করা হলে  র‌্যাব- ১৫ এর অধিনায়ক উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ বলেন, র‍্যাব বা আইনশৃংঙ্খলা বাহিনীর  নাম ভাঙিয়ে কেউ অনৈতিক সুবিধা আদায় করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। পাশাপাশি ভুক্তভোগীদের এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পরামর্শও দিয়েছেন তিনি।

ট্যাগ :